486

12/09/2021

চিকিৎসকদের বীমা বাধ্যতামূলক করছে সিঙ্গাপুর

প্রকাশ: ২৯ জুলাই ২০১৭

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: চিকিৎসকদের জন্য বীমা গ্রহণ বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে সিঙ্গাপুর। এরইমধ্যে বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করেছে সিঙ্গাপুর মেডিকেল কাউন্সিল (এসএমসি) এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। চিকিৎসকদের কোন ভুলের কারণে রোগী ও তার পরিবারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণের দাবি উত্থাপন করা হলে তা পরিশোধ করবে বীমা কোম্পানি।

একইভাবে রোগীকেও বীমা সুবিধা দেয়া হবে এই পলিসির আওতায়। এক্ষেত্রে চিকিৎসকের কোন অবহেলার কারণে যদি রোগী ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং তা প্রমাণিত হয় তাহলে বীমা কোম্পানি ওই রোগীকেও ক্ষতিপূরণ দেবে। স্থানীয় গণমাধ্যম স্ট্রেইটস টাইমস'র প্রতিবেদনে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুসারে, এই বীমা কভারেজ শুধুমাত্র আদালতের মাধ্যমে নিষ্পত্তিকৃত ঘটনার ক্ষতিপূরণ দেবে না বরং রোগী ও তার পরিবারের উত্থাপিত যেকোন ধরণের ব্যয় পরিশোধ করবে। তবে এক্ষেত্রে আদালতের মাধ্যমে বা অন্য যেকোন মাধ্যমে বীমা দাবি নিষ্পত্তি করার বিকল্প গ্রহণের সুযোগ পাবেন চিকিৎকরা।

এ ধরণের বীমা কভারেজ গ্রহণ বাধ্যতামূলক না হলেও এবং প্রিমিয়াম খরচ অনেক বেশি হওয়ার পরও সিঙ্গাপুরের বেশিরভাগ চিকিৎসক এটি গ্রহণ করে থাকেন। এসথেটিক সার্জারি, নিউরো সার্জারি এবং বেরিয়াট্রিক সার্জারি, যেখানে স্থুলতা মোকাবেলায় পেটের আকার সার্জারির মাধ্যমে হ্রাস করা হয়- এ সকল কার্যপ্রণালী এর অন্তর্ভুক্ত।

সম্প্রতি যে ঘটনার কারণে চিকিৎসকদের বীমা গ্রহণ বাধ্যতামূলক করার কাজ শুরু হয়েছে, সেটি ছিল বেরিয়াট্রিক সার্জারি। ওই সার্জারিতে চিকিৎসকের ভুলের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত রোগি দাবি উত্থাপন করলে দেখা যায়, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের বীমা কভারেজ নেই। এমনকি ক্ষতিপূরণ দেয়ার যথেষ্ট সক্ষমতাও তার নেই।

ঘটনাটি গত মাসে যখন স্ট্রেইটস টাইমস প্রকাশ করে তখন সিঙ্গাপুর মেডিকেল কাউন্সিল জানায়, চিকিৎসকদের প্র্যাকটিস করার অনুমোদন দেয়ার জন্য আইনে উপযুক্ত বীমা কভারেজ গ্রহণের প্রয়োজন শর্ত হিসেবে রয়েছে। কিন্তু সঠিকভাবে এটা চর্চা করা হচ্ছে না।