আইডিআরএ’র প্রতিবেদনে ২০১৮গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহে শীর্ষে ফারইষ্ট, প্রথম বর্ষ প্রিমিয়ামে পপুলার


Published: 2019-10-20 06:06:00 BdST

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশিয় লাইফ বীমা কোম্পানিগুলোর মধ্যে গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহে শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ। কোম্পানিটি ২০১৮ সালে ১ হাজার ৫৮ কোটি ৭৮ লাখ টাকা গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আগের বছরেও কোম্পানিটি ১ হাজার ১২ কোটি ৪ লাখ টাকা গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ করে শীর্ষ অবস্থানে ছিল। ২০১৮ সালে লাইফ বীমায় কোম্পানিটির মার্কেট শেয়ার ১১.৭৪ শতাংশ, আর প্রবৃদ্ধি ৪.৬২ শতাংশ। এ ছাড়াও ৩৪৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ করে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে কোম্পানিটি।

অন্যদিকে প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহে শীর্ষ অবস্থান দখল করেছে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটি ২০১৮ সালে ৫৫৯ কোটি ৬ লাখ টাকা নতুন প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। এর আগে ২০১৭ সালে কোম্পানিটি ২৭৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ করে। অর্থাৎ নতুন প্রিমিয়াম সংগ্রহে কোম্পানিটির প্রবৃদ্ধি ১০২.৮৪ শতাংশ। ২০১৮ সালে পপুলার লাইফ ৮০৩ কোটি ৯৮ লাখ টাকা গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ করে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে, প্রবৃদ্ধি ৬০.৪২ শতাংশ।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) সম্প্রতি এ তথ্য প্রকাশ করেছে। ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালের প্রথম প্রান্তিকের তথ্যের ভিত্তিতে লাইফ বীমাকারীর ব্যবসার দক্ষতা মূল্যায়ন শীর্ষক প্রতিবেদনে এ চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। বিদেশি মালিকানাধীন লাইফ বীমা কোম্পানি হওয়ায় মেটলাইফ (আলিকো)’কে এই হিসাবের বাইরে রাখা হয়েছে।

আইডিআরএ’র তথ্য অনুসারে, ২০১৮ লাইফ বীমাখাতে ৯ হাজার ১৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ হয়েছে। এর ১০.৭১ শতাংশ সংগ্রহ করে দেশিয় কোম্পানিগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটি ২০১৮ সালে সর্বমোট ৯৬৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আগের বছরে এর পরিমাণ ছিল ৮৭১ কোটি ১১ লাখ টাকা। অর্থাৎ ২০১৮ সালে কোম্পানিটির গ্রস প্রিমিয়াম আয়ে প্রবৃদ্ধি ১০.৯১ শতাংশ। আলোচ্য বছরে ন্যাশনাল লাইফের প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ ২৫০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি ১০.৮২ শতাংশ।

অন্যদিকে ২০১৮ সালে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স সর্বমোট ৬৬৪ কোটি টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আগের বছরে কোম্পনিটির গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ ছিল ৬২৫ কোটি ১০ লাখ টাকা। সে হিসাবে ২০১৮ সালে ডেল্টা লাইফের প্রবৃদ্ধি ৬.২২ শতাংশ এবং মার্কেট শেয়ার ৭.৩৬ শতাংশ। ২০১৮ সালে ডেল্টা লাইফের প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহের পরিমাণ ১৩৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি -২৩.৪৩ শতাংশ।

গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহে এর পরের অবস্থানে রয়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন জীবন বীমা করপোরেশন (জেবিসি) । ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠানটি মোট ৫২৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করে। যা ২০১৭ সালে ছিল ৪৭৪ কোটি ৭২ লাখ টাকা। ২০১৮ সালে গ্রস প্রিমিয়াম আয়ে প্রতিষ্ঠানটির প্রবৃদ্ধি ১১.৪৮ শতাংশ এবং মার্কেট শেয়ার ৫.৮৭ শতাংশ। ২০১৮ সালে জেবিসি’র প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ ১০৯ কোটি ৬ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি -২১.৮০ শতাংশ।

এ ছাড়াও মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ২০১৮ সালে সর্বমোট ৪৩২ কোটি ৯১ লাখ টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আর ২০১৭ সালে কোম্পানিটির গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ ছিল ৪২৮ কোটি ৬১ লাখ টাকা। সে হিসাবে ২০১৮ সালে কোম্পানিটি ১.০০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি করেছে। মেঘনা লাইফের মার্কেট শেয়ার ৪.৮০ শতাংশ, যা আগের বছরে ছিল ৫.২৩ শতাংশ। অর্থাৎ প্রিমিয়াম আয় বাড়লেও কমেছে মার্কেট শেয়ার। ২০১৮ সালে মেঘনা লাইফের প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ ১০২ কোটি ৬৫ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি -২.০৬ শতাংশ।

২০১৮ সালে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স সর্বমোট ৩৬২ কোটি ২৭ লাখ টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আগের বছরে কোম্পনিটির গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ ছিল ৩৪৭ কোটি ১২ লাখ টাকা। সে হিসাবে ২০১৮ সালে প্রাইম ইসলামী লাইফের প্রবৃদ্ধি ৩৮.১০ শতাংশ এবং মার্কেট শেয়ার ৪.০২ শতাংশ। ২০১৮ সালে প্রাইম ইসলামী লাইফের প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ ১১৩ কোটি ৭৪ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি -২.৮০ শতাংশ।

প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স ২০১৮ সালে সর্বমোট ২৫৫ কোটি ৯৯ লাখ টাকা প্রিমিয়াম সংগ্রহ করেছে। আগের বছরে কোম্পনিটির গ্রস প্রিমিয়াম সংগ্রহ ছিল ২৩১কোটি ৯৬ লাখ টাকা। সে হিসাবে ২০১৮ সালে প্রগতি লাইফের প্রবৃদ্ধি ৭৩.০৩ শতাংশ এবং মার্কেট শেয়ার ২.৮৪ শতাংশ। ২০১৮ সালে প্রগতি লাইফের প্রথম বর্ষ প্রিমিয়াম সংগ্রহ ৬৭ কোটি ৬২ লাখ টাকা, প্রবৃদ্ধি -৫৪.৭৯ শতাংশ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোস্তাফিজুর রহমান টুংকু সম্পাদকীয় কার্যালয়
৫৩ মডার্ন ম্যানসন, মতিঝিল সি/এ, লেভেল # ১১, স্যুট # ৬, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০২ ৯৫১৪৮৭২, ইমেইল: insurancenewsbd@gmail.com