পরিবেশ দূষণ: কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের ঝুঁকি নেবে না বীমাকারীরা

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: পরিবেশ দূষণের কারণে আর কোন কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের ঝুঁকি নেবে না বা বীমা কভারেজ প্রদান করবে না দক্ষিণ কোরিয়ার বীমা কোম্পানিগুলো। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস’র আহবানে সারা দিয়ে এমন ঘোষণা দিয়েছে দেশটির বেশিরভাগ নন-লাইফ বীমা কোম্পানি।

জীবাশ্ম জ্বালানি যেমন- কয়লা, তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর বীমা কভারেজ না দিতে চলতি মাসের শুরুর দিকে বীমা কোম্পানিগুলোকে আহবান জানান জাতিসংঘ মহাসচিব। শক্তিশালী জলবায়ু নীতি এবং বিদ্যুৎ বিধিমালা সংস্কারের সমর্থনকারী দক্ষিণ কোরিয়া ভিত্তিক সংগঠন সলিউশনস ফর আওয়ার ক্লাইমেট (এসএফওসি) এ তথ্য জানিয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের আহবানে কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণ এবং পরিচালনা উভয়ের বীমা কভারেজ প্রদান থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতিবদ্ধ প্রথম ৪ বীমা কোম্পানি হলো- হুন্ডাই মেরিন অ্যান্ড ফায়ার ইন্স্যুরেন্স, হানা বীমা, ডিবি ইন্স্যুরেন্স এবং হানভা জেনারেল ইন্স্যুরেন্স। দেশটির কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পগুলোর প্রায় অর্ধেক বীমা কাভারেজ দিয়েছে এই ৪ বীমা প্রতিষ্ঠান।

দক্ষিণ কোরিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা বিুদ্যৎ প্রকল্পের বীমাকারী ডিবি ইন্স্যুরেন্স জানিয়েছে যে, প্রতিষ্ঠানটি আরো কোন কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের বীমা কভারেজ দেবে না এবং ধীরে ধীরে তাদের বিদ্যমান কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের বীমা কভারেজকে গুটিয়ে নেবে।

একইভাবে এনএইচ প্রোপার্টি এন্ড কজালটি ইন্স্যুরেন্স এবং স্যামসাং ফায়ার অ্যান্ড মেরিন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি জানিয়েছে যে, তারা আর নতুন কয়লা কেন্দ্রের নির্মাণকাজের বীমা করবে না। তবে তারা অপারেশন-সম্পর্কিত বীমার বিষয়ে কোনও প্রতিশ্রুতি দেয়নি।

ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্য স্যুয়াং লি’র অফিসের মতে, প্রধান বীমা কোম্পানিগুলোর দ্বারা মোট কয়লা বীমা কভারেজের পরিমাণ ৫৯.২ টিলিয়ন ওন তথা ৫২.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। এর মধ্যে ১৩.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার কয়লা বীমা কভারেজ দিয়ে বৃহত্তম বীমা কোম্পানি হিসেবে দাঁড়িয়েছে স্যামসাং ফায়ার অ্যান্ড মেরিন ইন্স্যুরেন্স।

এ ছাড়াও ১০.৫৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার কয়লা বীমা কভারেজ দিয়ে দ্বিতীয় বৃহত্তম বীমা কোম্পানি হিসেবে রয়েছে বেসরকারি কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান ডিবি ইন্স্যুরেন্স। এদিকে স্যামসাং ফায়ার অ্যান্ড মেরিন যেহেতু শুধু নির্মাণ বীমাকেই বাদ দিয়েছে, তাই নতুন কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পগুলো বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করার সাথে সাথে এর কয়লা বীমার চাহিদা বাড়তে পারে। (সূত্র: এআইআর)