মঙ্গলবার , ২৭ শ্রাবণ, ১৪২৭ , ১১ আগস্ট, ২০২০

বীমা চুক্তির আইনগত বৈশিষ্ট্যাবলী


Published: 2020-05-09 13:25:49 BdST

এ কে এম এহসানুল হক, এফসিআইআই: বীমা চুক্তি অন্যান্য বৈধ চুক্তি অপেক্ষা ভিন্ন এবং স্বতন্ত্র। কেবলমাত্র সম্পত্তি এবং দুর্ঘটনা বীমা প্রকৃত ক্ষতিপূরণের প্রতিশ্রুতি প্রদান করে থাকে। সকল বীমা চুক্তি বীমাযোগ্য স্বার্থ এবং চূড়ান্ত সদবিশ্বাস মতবাদ বা নীতির দ্বারা পরিচালিত এবং নিয়ন্ত্রিত।

বীমা চুক্তির স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যাবলী (Other Distinct Legal Characteristics of Insurance Contract):

১। অসামঞ্জস্য বা অসমান মূল্য বিনিময় চুক্তি (Aleatory Contract); এটি এক প্রকার চুক্তি যেখানে মূল্য বিনিময় অসমান কিন্তু ঝুঁকির অনিশ্চয়তার উপর মূলত নির্ভরশীল। এই ধরণের চুক্তিতে অসমানুপাতিক হারে মূল্য বিনিময় করা হয়। দৃষ্টান্তসরূপ- ৫ লাখ টাকা অগ্নি বীমার বিপরীতে বাৎসরিক ৫০০ টাকা প্রিমিয়াম প্রদান।

২। এক পক্ষীয় চুক্তি (Unilateral Contract); বীমা এক পক্ষীয় চুক্তির অন্তভূক্ত। এক পক্ষীয় চুক্তি বলতে সাধারণত সেই সমস্ত চুক্তিকে বুঝায় যেখানে কেবলমাত্র এক পক্ষ যেমন- বীমাকারী ঝুঁকি সংঘটিত হলে ক্ষতিপূরণ প্রদানের অঙ্গীকারবদ্ধ।

৩। শর্তযুক্ত চুক্তি (Conditional Contract); বীমা এক প্রকার শর্তযুক্ত চুক্তি। কেবলমাত্র চুক্তির শর্ত পালনের মাধ্যমে বীমাগ্রহীতা ক্ষতিপূরণের দাবি করার যোগ্যতা রাখে। বীমা চুক্তিপত্রে বিভিন্ন ধরণের শর্ত বা নিয়মাবলী আরোপ করা হয়ে থাকে যা পালন করা বীমাগ্রহীতার দায়িত্ব এবং কর্তব্য। শর্ত লঙ্ঘন বা ভাঙ্গার কারণে কারণে বীমাকারী ক্ষতিপূরণ প্রদানে অস্বীকার কিংবা দাবি নাকোচ করতে পারে।

৪। ব্যক্তিগত চুক্তি (Personal Contract); সম্পত্তি বীমা এক প্রকার ব্যক্তিগত চুক্তি হিসেবে কাজ করে। বীমা চুক্তি বীমাকারী এবং বীমাগ্রহীতার মধ্যে সম্পাদিত হয়ে থাকে। সম্পত্তি বীমায় বীমাকারী সম্পত্তির মালিকের স্বার্থ রক্ষা করে। অগ্নিকাণ্ডের ফলে সম্পত্তির ক্ষতি সাধিত হলে বীমাকারী বীমাগ্রহীতাকে ক্ষতিপূরণ প্রদান করে থাকে।

৫। অনুগত চুক্তি (Contract of Adhesion);  অনুগত চুক্তি অর্থ হচ্ছে কোন রকম ওজর আপত্তি ছাড়া বীমার সকল চুক্তি এবং নিয়মাবলী নির্দিধায় মেনে চলা বা পালন করা। এ ব্যাপারে বীমাগ্রহীতার পছন্দ বা অপছন্দের তেমন বিশেষ কোন সুযোগ নাই। ইচ্ছা করলেই বীমাগ্রহীতা শর্তাবলীর এক অংশ গ্রহণ এবং অন্য অংশ প্রত্যাখ্যান করতে পারবে না।

বীমা চুক্তিপত্র সহজ এবং বোধগম্য হওয়া প্রয়োজন। এ ব্যাপারে বীমাকারীকে যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। চুক্তিপত্রে কোন ধরণের ভুল-ভ্রান্তি বা সংশয় যা আইনের দৃষ্টিতে বীমা গ্রহীতার স্বার্থের পরিপন্থী, সেই ক্ষেত্রে বিবাদের বেলায় আদালতের রায় বীমাকারীর বিপক্ষে যেতে পারে (Contra Proferentem Rule) ।   

লেখক: জেনারেল সেক্রেটারি, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স প্রফেশনালস সোসাইটি (বিআইপিএস) ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোস্তাফিজুর রহমান টুংকু সম্পাদকীয় কার্যালয়
৫৩ মডার্ন ম্যানসন, মতিঝিল সি/এ, লেভেল # ১১, স্যুট # ৬, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০২ ৯৫১৪৮৭২, ইমেইল: insurancenewsbd@gmail.com