করোনায় স্বাস্থ্য বীমা সুবিধা হারাতে যাচ্ছে লাখ লাখ মার্কিনী


Published: 2020-03-28 14:09:24 BdST

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মহামারীতে স্বাস্থ্য বীমা সুবিধা হারাতে যাচ্ছে লাখ লাখ মার্কিনী। এমনটাই মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বৃহৎ স্বাস্থ্য বীমা কোম্পানি সিআইজিএনএ’র বাণিজ্যিক যোগাযোগ বিভাগের সাবেক সহ-সভাপতি ওয়েন্ডেল পটার। ২০০৯ সালের জুনে তিনি মার্কিন সিনেটে স্বাস্থ্য রক্ষণাবেক্ষণ সংগঠন শিল্পের বিরুদ্ধে হুইসেল ব্লোয়ার হিসেবে স্বাক্ষ্য দিয়েছিলেন।

ওয়েন্ডেল পটার বলছেন, নভেল করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমাদের এই যুদ্ধের করুণ প্রভাবগুলো আপাতদৃষ্টিতে অন্তহীন বলে মনে হচ্ছে। তবে সবচেয়ে খারাপ বিষয়টি হলো এই যে, লাখ লাখ লোককে সংক্রমিত ও হত্যার হুমকি দিচ্ছে এই মহামারী, একইসাথে অনেককে তাদের প্রয়োজনের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে স্বাস্থ্য বীমা কভারেজও হারানোর কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

ওয়েন্ডেল পটার তার বক্তব্যের ব্যাখ্যায় বলছেন, ভাইরাসটির কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্য সংকট তৈরি হওয়ায় জনগণ বাড়িতে অবস্থান করতে বাধ্য হচ্ছে। এর কারণে ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ হয়েছে এবং শ্রমিকরা ছুটিতে যেতে বাধ্য হয়েছে। অথচ আমেরিকানদের অর্ধেকেরও বেশি স্বাস্থ্য বীমা সুবিধা পান তাদের নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠান থেকে। আর এই ছুটির অর্থ হচ্ছে তারা শুধু উপার্জন-ই হারাবে না বরং তাদের স্বাস্থ্য বীমা সুবিধাও হারাবে।

অন্য কথায়, এই বৈশ্ব্যিক মহামারীর সময় আমাদের স্বাস্থ্য সেবার চাহিদা দ্রুতগতিতে বাড়ছে। অথচ খুব কম লোকেরই স্বাস্থ্য বীমা রয়েছে অথবা এই স্বাস্থ্য সেবার চাহিদা পূরণের সক্ষমতা রয়েছে। সাম্প্রতিক এই প্রতিবেদনের তথ্য অনুসারে, কভিড-১৯ এর চিকিৎসায় ৩৫ হাজার ডলারের বেশি খরচ হতে পারে। প্রতিবেদনের দাবি অনুসারে একজন রোগী হিসেবে- “আমি প্রথমে বেশ খানিকটা ধাক্কা খেয়েছি। আমি ব্যক্তিগতভাবে জানি না যে, কারো এই পরিমাণ অর্থ আছে কিনা।”

তিনি বলেন, আরো আসন্ন সপ্তাহগুলোতে অনেকে দুঃখজনকভাবে তাদের চাকরি হারাবেন- এক অনুমান হিসাবে যার পরিমাণ প্রায় ৩০ শতাংশ। আমেরিকানরা যা করে তাতে তারা ভয়াবহ কিছু শিখতে চলেছে: কারণ স্বাস্থ্য বীমার জন্য নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের ওপর এতোটা নির্ভরশীল হওয়া কতটা অযৌক্তিক এবং দায়িত্বজ্ঞানহীন! আমার কাছ থেকে এটা জেনে নাও। আমি একজন প্রাক্তন স্বাস্থ্য বীমা নির্বাহী যিনি একবার এই পদ্ধতি থেকে লাভবান হয়েছিলেন। এখনই সময় এটা বন্ধ হওয়ার।

ওয়েন্ডেল পটার বলেন, চাকরির সঙ্গে সংযুক্ত স্বাস্থ্য বীমা কভারেজ ব্যবসা থেকে আমেরিকাকে চূড়ান্তভাবে বের হয়ে আসা প্রয়োজন। এমনকি স্বাস্থ্য সেবার দৃষ্টিকোণ থেকে আরো ভালো সময়েও এই ব্যবস্থাটি একটি খারাপ ধারণা ছিল। স্বাস্থ্য বীমার জন্য নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভরশীল অধিকাংশ আমেরিকানের পরিবার বীমার আওতা বহির্ভূত হওয়ার জন্য কর্মস্থলের ছুটিই যথেষ্ট।

বর্তমানে যখন অনেক ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এবং ছুটি দেয়ার চিন্তা করছে তখন এটি জনস্বাস্থ্য বিপর্যয়ে পরিণত হচ্ছে। দেশজুড়ে আমরা বেশিরভাগ শিল্প প্রতিষ্ঠান বন্ধের প্রতিবেদন দেখছি। আমরা যখন বৈশ্বিক মন্দার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি, তখন কিছু বিশ্লেষক পরামর্শ দিয়েছেন যে, কেবল এপ্রিল মাসে দশ লাখ বা আরও বেশি মার্কিন কর্মী তাদের চাকরি হারাবেন। এই দেশে স্বাস্থ্য সেবার জন্য এর অর্থ কী তা বিবেচনা করুন। (সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান)

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পাদক ও প্রকাশক
মোস্তাফিজুর রহমান টুংকু সম্পাদকীয় কার্যালয়
৫৩ মডার্ন ম্যানসন, মতিঝিল সি/এ, লেভেল # ১১, স্যুট # ৬, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০২ ৯৫১৪৮৭২, ইমেইল: insurancenewsbd@gmail.com